Accessibility links

Breaking News

যুক্তরাষ্ট্র ও আফ্রিকান ইউনিয়ন কমিশনের মধ্যে সহযোগিতা স্মারক স্বাক্ষরিত


যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিংকেন পররাষ্ট্র দফতরে যুক্তরাষ্ট্র ও আফ্রিকান ইউনিয়নের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের বৈঠকে , ১১ মার্চ ২০২২ । ছবি রয়টার্স

যুক্তরাষ্ট্র ও আফ্রিকান ইউনিয়ন কমিশনের মধ্যে একটি নতুন সহযোগিতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়েছে। ১১ মার্চ পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিংকেন এবং এইউ কমিশনের চেয়ারপারসন মুসা ফাকি মাহামত স্বাক্ষরিত এই স্মারকটি যুক্তরাষ্ট্র এবং আফ্রিকার দেশ ও সংস্থাগুলোর মধ্যে অংশীদারিত্ব আরও দৃঢ় করবে বলে জানিয়েছেন, পররাষ্ট্রমন্ত্রী ব্লিংকেন। “নভেম্বর মাসে আমি আমাদের দুই অঞ্চলের দেশ এবং জনগণের স্বার্থ অত্যন্ত শক্তিশালীভাবে জড়িত এমন পাঁচটি ক্ষেত্র নির্ধারণ করেছি: গণতন্ত্র, শান্তি ও নিরাপত্তা, অন্তর্ভুক্তিমূলক অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি, জলবায়ু সংকট এবং বিশ্বব্যাপী স্বাস্থ্য নিরাপত্তা।এবং আমরা এই প্রত্যেকটি বিষয়ে আফ্রিকান ইউনিয়নের সঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করছি।

সমগ্র মহাদেশজুড়ে গণতন্ত্রের প্রতি বৈরি পরিবেশ অব্যাহত রয়েছে। তবে আফ্রিকান ইউনিয়ন শক্তিশালী পদক্ষেপের মাধ্যমে সাড়া দিয়েছে। একদিকে মালি, বুরকিনা ফাসো, গিনির গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার করার প্রচেষ্টা চালু রেখেছে এবং অন্যদিকে যে সমস্ত দেশে গণতান্ত্রিক সরকারকে উৎখাত করা হয়েছে তাদের সদস্যপদ স্থগিত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে”।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ব্লিংকেন বলেছেন, “নিরাপত্তা বা শান্তি অর্জনের চ্যালেঞ্জগুলো প্রায়ই...অর্থনৈতিক সুযোগের অভাব থেকে উদ্ভূত হয়”।

“আমরা এইউ, আফ্রিকান সরকার এবং ব্যবসা, উদ্যোক্তা, সুশীল সমাজ, আমাদের নিজস্ব বেসরকারি খাত এবং আন্তর্জাতিক আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোকে পরস্পরের অংশীদার বানাচ্ছি যাতে তাদের বিনিয়োগ আকর্ষণের মাধ্যমে নির্ভরযোগ্য অবকাঠামো এবং বিদ্যুৎ সুবিধার মতো আরও সুযোগ সৃষ্টি ও বৃদ্ধি করা যায়”।

জলবায়ু সংকটের বিষয়ে, আমরা এইউ’এর মহাদেশীয় জলবায়ু পরিবর্তন কৌশলকে সমর্থন করতে এবং আফ্রিকাজুড়ে দেশগুলোকে জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবগুলোর সঙ্গে খাপ খাইয়ে নিতে ও ব্যবস্থাপনা করতে সহায়তা করার জন্য নতুন উপায় খুঁজে বের করতে আমাদের কার্যক্রমগুলো সমন্বয় করছি, পররাষ্ট্রমন্ত্রী ব্লিংকেন বলেছেন।

“অবশেষে, আমরা মহামারী মোকাবিলায় একজোট হয়ে কাজ করছি”, তিনি বলেন। “এইউ হলো…মহামারি মোকাবিলায় আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রচেষ্টা কোভিড বৈশ্বিক অ্যাকশন প্ল্যানের একটি গুরুত্বপূর্ণ সদস্য”।

“আমরা এইউ’এর অংশীদারত্বের জন্য কৃতজ্ঞ, বিশেষ করে কোভিড টিকা অনুদান সমন্বয় এবং মহাদেশের কোভিড প্রতিক্রিয়া ব্যবস্থাপনার জন্য। এইউয়ের জয়েন্ট কন্টিনেন্টাল স্ট্র্যাটেজি ফর কোভিড-১৯ এর নির্দেশনায় যুক্তরাষ্ট্র এখন অবধি আফ্রিকার দেশগুলোতে ১৬৬ মিলিয়ন টিকা সহায়তা প্রদান করেছে।

নতুন এই সহযোগিতা স্মারকের মাধ্যমে “জনস্বাস্থ্য কর্মীদের সংখ্যা বৃদ্ধি করা হবে, গবেষণা ও উন্নয়নের জন্য নতুন প্রতিষ্ঠান স্থাপন করা হবে এবং পরবর্তী মহামারী শুরু হওয়ার আগেই তা ঠেকানোর জন্য আফ্রিকার রোগ নিয়ন্ত্রণ ও প্রতিরোধ কেন্দ্রগুলো এবং যুক্তরাষ্ট্র সরকারের একসঙ্গে কাজ করা সহজ হবে”। পররাষ্ট্রমন্ত্রী ব্লিংকেন বলেছেন, “সমান অংশীদার হিসেবে, আমাদের জনগণের জন্য যে বিষয়গুলো আসলেই সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ সেগুলোর বিষয়ে কার্যকরি ফলাফল, পরিমাপযোগ্য সুবিধা প্রদানের জন্য এক সঙ্গে কাজ করার মাধ্যমেই আমরা অগ্রগতি সাধন করব”।

[এই সম্পাদকীয়তে যুক্তরাষ্ট্র সরকারের মতামত প্রতিফলিত হয়েছে]

XS
SM
MD
LG