Accessibility links

Breaking News

আফগানিস্তানে মেয়েদের মাধ্যমিক শিক্ষা নিষিদ্ধ করার তালিবানের পদক্ষেপের ব্যাপক সমালোচনা


ফাইল ফটো, নভেম্বর ২৫ ,২০২১ , এপি :আফগানিস্তানের হেরাতে মেয়েরা ক্লাসের বাইরে দাঁড়িয়ে আছে , এখন তাদের স্কুলে প্রবেশ নিষিদ্ধ

ষষ্ঠ শ্রেণীর পর মেয়েদের মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে যোগদান নিষিদ্ধ করার সিদ্ধান্ত তালিবান নেতৃত্বের প্রতিশ্রুতির বরখেলাপ। গত ২৩ মার্চ সমগ্র আফগানিস্তান জুড়ে হাজার হাজার মেয়ে স্কুলে গিয়ে স্কুল বন্ধ পেয়ে গভীর হতাশায় নিমজ্জিত হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিংকেন বলেছেন, “শিক্ষা একটি মানবাধিকার এবং তালিবান সরকার কর্তৃক সকল আফগান ছাত্রছাত্রী স্কুলে ফিরে যেতে সক্ষম হবে, এই মর্মে জনগণকে দেওয়া পূর্বের প্রতিশ্রুতি ভঙ্গে দেখানো অজুহাত, যুক্তরাষ্ট্র প্রত্যাখ্যান করে”। তিনি আরও বলেছেন, “আমরা আফগান মেয়েদের এবং তাদের পরিবারের পাশে আছি, যারা শিক্ষাকে আফগানিস্তানের সমাজ ও অর্থনীতির পূর্ণ সম্ভাবনা বিকাশের পথ বলে বিশ্বাস করেন”।

আফগান নারী, বালিকা ও মানবাধিকারবিষয়ক যুক্তরাষ্ট্রের বিশেষ দূত রিনা আমিরি এই নিষেধাজ্ঞাকে “আফগান পরিবারের প্রতি বিশ্বাসঘাতকতা” বলে অভিহিত করেছেন। তিনি আরও বলেছেন, মেয়েদের শিক্ষাকে অস্বীকার করার সঙ্গে আফগান সংস্কৃতির কোনো সম্পর্ক নেই। তিনি বলেন, আফগান জনগণের ওপর পরিচালিত একাধিক জরিপে দেখা যায়, জনগণ মেয়েদের শিক্ষাকে ব্যাপকভাবে সমর্থন করছে।

২০২১ সালের অগাস্টে তালিবান দেশটির নিয়ন্ত্রণ দখল করার পর থেকে, নারীরা লিঙ্গের ভিত্তিতে পোশাক, আচরণ ও ভ্রমণের বিষয়ে বৈষম্য ও নতুন নতুন বিধিনিষেধের সম্মুখীন হয়ে আসছেন। আফগান টিভি চ্যানেলগুলোকে নারীদের সমস্যাগুলো তুলে ধরতে বাধা দেওয়া হয়েছে এবং কয়েক ডজন নারী অধিকার কর্মীকে আটক করা হয়েছে বা তাদের অনেকে নিখোঁজ রয়েছেন।

মেয়েদের মাধ্যমিক শিক্ষায় যোগদানে বাধা দেওয়ার তালিবানের সাম্প্রতিক পদক্ষেপ আন্তর্জাতিক অঙ্গনে ব্যাপক নিন্দার জন্ম দিয়েছে। অর্গানাইজেশন অফ ইসলামিক কো-অপারেশনের (ওআইসি) সচিবালয় “এই অপ্রত্যাশিত সিদ্ধান্তের জন্য গভীর হতাশা প্রকাশ করেছে” এবং বলেছে “আফগান জনগণের ছেলে ও মেয়ে নির্বিশেষে, তাদের মৌলিক অধিকারগুলোকে, যার মধ্যে শিক্ষাও রয়েছে ...যথাযথ সম্মান দিতে হবে”।

২৪ মার্চ কানাডা, ফ্রান্স, ইতালি, নরওয়ে, যুক্তরাজ্য ও যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা এবং ইউরোপীয় ইউনিয়নের উচ্চপদস্থ প্রতিনিধিরা এক যৌথ বিবৃতি জারি করে তালিবান কর্তৃপক্ষের প্রতিশ্রুতি ভঙ্গের নিন্দা জানান।

তারা লিখেছেন, “আমরা তালিবান সরকারকে এই সিদ্ধান্তটি প্রত্যাহার করার জন্য জরুরিভাবে আহ্বান জানাচ্ছি—যে সিদ্ধান্তের কারণে মেয়েদের অপরিসীম ক্ষতি হবে”। বিপরীতভাবে, এটি আফগানিস্তানের সামাজিক সংহতি ও অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির সম্ভাবনা, আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের কাছে একটি সম্মানিত দেশ হিসেবে স্বীকৃতি পাওয়ার উচ্চাকাঙ্ক্ষা এবং বিভিন্ন দেশে বসবাসকারী আফগানদের দেশে ফিরে আসার ইচ্ছাকে গভীরভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করবে। এটি তালিবান সরকারের দেশে বা বিদেশে রাজনৈতিক সমর্থন ও বৈধতা পাওয়ার সম্ভাবনার ওপর অনিবার্য প্রভাব ফেলবে”। তারা আরও বলেছেন, “প্রত্যেক আফগান নাগরিকের, ছেলে–মেয়ে, নারী–পুরুষ নির্বিশেষে, দেশের সমস্ত প্রদেশে সকল স্তরে শিক্ষার সমান অধিকার রয়েছে”।

[এই সম্পাদকীয়তে যুক্তরাষ্ট্র সরকারের মতামত প্রতিফলিত হয়েছে]

XS
SM
MD
LG