Accessibility links

Breaking News

ওএসসিই রাষ্ট্রগুলিকে তাদের প্রতিশ্রুতি সমুন্নত রাখতে হবে


ছবি : ভয়েস অফ আমেরিকা

ইডেনে ইউরোপে নিরাপত্তা ও সহযোগিতা সংস্থা বা ওএসসিই'র মন্ত্রীদের বৈঠকে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিংকেন  এক মন্তব্যে ঘোষণা করেন, "স্থায়ী শান্তি ও সমৃদ্ধির জন্য দেশগুলোর সার্বভৌমত্ব ও আঞ্চলিক অখন্ডতা এবং সব মানুষের মানবাধিকার-- এই দুইটি বিষয়ের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হওয়া  প্রয়োজন"।  

সুইডেনে ইউরোপে নিরাপত্তা ও সহযোগিতা সংস্থা বা ওএসসিই'র মন্ত্রীদের বৈঠকে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিংকেন এক মন্তব্যে ঘোষণা করেন, "স্থায়ী শান্তি ও সমৃদ্ধির জন্য দেশগুলোর সার্বভৌমত্ব ও আঞ্চলিক অখন্ডতা এবং সব মানুষের মানবাধিকার-- এই দুইটি বিষয়ের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হওয়া প্রয়োজন"।

স্বাধীনতা এবং স্থিতিশীরতার মধ্যে যেমন সংযোগ রয়েছে, ঠিক তেমনি দেশের অভ্যন্তরে দমন-পীড়ন এবং আন্ত:সীমান্ত আগ্রাসনের মধ্যেও সংযোগ রয়েছে। পররাষ্ট্রমন্ত্রী ব্লিংকেন জোর দিয়ে বলেছিলেন,"যে দেশগুলো নিয়মতান্ত্রিকভাবে দেশের অভ্যন্তরে মানবাধিকার লঙ্ঘন করে অন্য দেশে অস্থিতিশীলতার বীজ বপন করে এবং যে শাসকরা ক্ষমতার অপব্যবহার করে ও তাদের জনগণের অধিকারকে উপেক্ষা করে, তারা অন্য দেশের নেতাদের ঐ একই কাজ করার অনুমতি দেয়"।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ব্লিংকেন উল্লেখ করেন যে, " এই মুহুর্তে ওএসসিই'র অবিচল প্রচেষ্টা সত্ত্বেও গণতান্ত্রিক মূল্যবোধ, মানবাধিকার, সুশীল সমাজ, স্বাধীন গণমাধ্যম, আইনের শাসন অনেক দেশেই উল্লেখযোগ্য চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি"। তিনি বলছিলেন--প্রকৃতপক্ষে, " বেলারুশ আন্তর্জাতিক আইন এবং ওএসসিই'র প্রতিশ্রুতি ভঙ্গ করে চলেছে"। ব্লিংকেন আরও বলেন, "আমরা আবারও বেলারুশের কর্তৃপক্ষকে তাদের হিংসাত্মক দমন-পীড়ন বন্ধ করার, সব রাজনৈতিক বন্দীকে মুক্তি দেবার, স্বাধীন পর্যবেক্ষণের অধীনে অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য জনগণের দাবির প্রতি মনোযোগ দেবার এবং অভিবাসনের নির্লজ্জ অস্ত্রায়ন বন্ধ করার আহবান জানাচ্ছি"।

রাশিয়া ওএসসিই'র মৌলিক প্রতিশ্রুতিগুলোও লঙ্ঘন করে চলেছে। ক্রাইমিয়ার তাতারদের , ইউক্রেনিয়ার জাতিগোষ্ঠী এবং অন্যান্য যারা জোরপূর্বক ক্রাইমিয়া দখলের বিরোধিতা করছে তাদের বিরুদ্ধে নির্যাতন অব্যাহত রয়েছে। পররাষ্ট্রমন্ত্রী ব্লিংকেন আরও বলেন, "রাশিয়া ইউক্রেনের বিরুদ্ধে আরও উল্লেখযোগ্য আগ্রাসনের পরিকল্পনা করছে এমন প্রমাণে আমরা গভীরভাবে উদ্বিগ্ন এবং সে কারণে আমরা রাশিয়াকে ইউক্রেনের সার্বভৌমত্ব ও আঞ্চলিক অখন্ডতার প্রতি সম্মান দেখানোর জন্য সংঘাত বন্ধ, সম্প্রতি মোতায়েন করা সৈন্য ফেরত নেয়া, বাহিনীগুলোকে স্বাভাবিক শান্তিপূর্ণ অবস্থায় ফিরিয়ে নেয়া এবং মিনস্কের প্রতিশ্রুতিগুলো, বিশেষ করে যুদ্ধবিরতির বিধান এবং ওএসসিই'কে নিরীক্ষণের নিরবিচ্ছিন্ন সুযোগ দেয়া তা বাস্তবায়নের আহবান জানাই"।

রাশিয়া অধিকৃত অঞ্চল আবখাজিয়া এবং দক্ষিণ ওসেটিয়াতে বাহিনী রেখে জর্জিয়ায় প্রচলিত অস্ত্র নিয়ন্ত্রণের প্রতিশ্রুতি লঙ্ঘন করেছে। মলদোভার সম্মতি ছাড়া মলদোভায় রাশিয়ার সৈন্যরা অবস্থান করছে। রাশিয়া নিজের দেশের অভ্যন্তরে সুশীল সমাজের সংস্থাগুলোর উপর দমন-নিপীড়ন চালাচ্ছে। সর্বসাম্প্রতিক শিকার মর্যাদাপূর্ণ মানবাধিকার গোষ্ঠী মেমোরিয়ালের গুরুত্বপূর্ণ শাখাগুলো, সেই সঙ্গে স্বাধীন গণমাধ্যমও।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ব্লিংকেন ঘোষণা করেন, "আমরা পরস্পরকে শক্তিশালী করার জন্য গণতন্ত্রের শক্তিতে বিশ্বাস করি এবং যে দেশগুলোতে এখনো গণতন্ত্র নেই, সেই দেশগুলোর সম্ভাবনার জন্য জনগণের কল্যাণে তাদের সেদিকে অগ্রসর হতে হবে"। ওএসসিই সেই দৃষ্টিভঙ্গিকে এগিয়ে নেবার জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ ফোরাম হিসেবে রয়ে গেছে।

[এ ছিল যুক্তরাষ্ট্র সরকারের মতামত সম্বলিত সম্পাদকীয় ]

XS
SM
MD
LG