Accessibility links

Breaking News

সিরিয়া ও ইরাকে তাদের বাহিনীকে সুরক্ষা দিবে যুক্তরাষ্ট্র


যুক্তরাষ্ট্র সমর্থিত কুর্দিশ ডেমক্র্যাটিক বাহিনীর সঙ্গে আইসিসের সংঘাত । ২৪শে জানুয়ারি ২০২২ , এএফ পি

ইরাকে যুক্তরাষ্ট্রের মিশন সরকারিভাবে যুদ্ধ মিশন থেকে ইরাকী নিরাপত্তা বাহিনীর জন্য পরামর্শক ও সহায়তাকারী মিশনে রূপান্তরিত হয়েছে ।বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রের প্রায় ২৫০০ সেনা ইরাকে  এবং আনুমানিক ১০০০ সেনা আইসিসদের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্র পরিচালিত জোটের  চলমান লড়াই, অপারেশন ইনহেরেন্ট রেসল্ভের অংশ হিসাবে দুটি দেশে অবস্থান করছে।

ইরাকে যুক্তরাষ্ট্রের মিশন সরকারিভাবে যুদ্ধ মিশন থেকে ইরাকী নিরাপত্তা বাহিনীর জন্য পরামর্শক ও সহায়তাকারী মিশনে রূপান্তরিত হয়েছে ।বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রের প্রায় ২৫০০ সেনা ইরাকে এবং আনুমানিক ১০০০ সেনা আইসিসদের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্র পরিচালিত জোটের চলমান লড়াই, অপারেশন ইনহেরেন্ট রেসল্ভের অংশ হিসাবে দুটি দেশে অবস্থান করছে।

যুক্তরাষ্ট্রের সেনারা এই অঞ্চলে শুধুমাত্র আইসিসদের কাছ থেকেই ঝুঁকির মুখোমুখি নয় । জানুয়ারির প্রথম সপ্তাহে সিরিয়া ও ইরাকে সেনাদের ব্যবহৃত ঘাঁটিগুলি কতকগুলি লক্ষ্যবস্তুর শিকারে পরিণত হয় । এসব হামলার অন্তর্ভুক্ত ছিল পশ্চিমাঞ্চলীয় ইরাকে আইন আল আসাদ বিমান ঘাঁটির কাছে যুক্তরাষ্ট্রের সেনাদের লক্ষ্য করে দুটি বিস্ফোরকবাহী ড্রোন আক্রমণ । বিমানঘাঁটির প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা দুটি ড্রোন হামলা বিধ্বস্ত করে দেয়। এছাড়াও উত্তরপূর্বাঞ্চলীয় সিরিয়ায় সিরিয়ান ডেমোক্র্যাটিক বাহিনীর ব্যবহৃত "গ্রীন ভিলেজ ঘাঁটি যেখানে স্বল্প সংখক আমেরিকান ও জোট সেনারা অবস্থান করে, অসামরিক কাঠামোর মধ্য থেকে পরোক্ষ হামলার শিকার হয়।

যুক্তরাষ্ট্রের বিমান হামলায় নিহত, ইসলামিক রেভুলুশনারি গার্ড কোর, কুদস বাহিনীর প্রধান, জেনারেল কাসিম সুলেমানির দ্বিতীয় মৃত্যু বার্ষিকীর কাছাকাছি দিনগুলিতে এই হামলা চালানো হয়। কুদস বাহিনী যুক্তরাষ্ট্রের হাজার হাজার সৈন্যের নিহত ও আহত হওয়ার জন্য দায়ী। যুক্তরাষ্ট্র ২০১৯ সালে কুদস বাহিনীকে আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসী সংগঠন বলে চিহ্নিত করে।

সাম্প্রতিক এক সংবাদ সম্মেলনে প্রতিরক্ষা দফতরের মুখপাত্র, জন কার্বি বলেন, ইরাক ও সিরিয়ায় যুক্তরাষ্ট্রের বাহিনীর বিরুদ্ধে "সাম্প্রতিক হামলা অনেকটাই আমরা যেমন দেখেছি ইরান সমর্থিত মিলিশিয়াদের হামলার সঙ্গে সঙ্গতিপূর্ণ; আমাদের সাধারণ অনুমান হচ্ছে যে এসব গ্ৰুপগুলি এসব হামলার জন্য দায়ী"।

মুখপাত্র কার্বি এবং যৌথ টাস্ক ফোর্স, অপারেশন ইনহেরেন্ট রেসল্ভের মেজর জেনারেল জন ব্রেনেন উভয়ই স্পষ্ট করে জানান যে যুক্তরাষ্ট্র সামরিক বাহিনী আত্মরক্ষায় সমর্থ এবং তা করে যাবে। মেজর জেনারেল ব্রেনান বলেন, যে কোনো হুমকি মোকাবেলায় জোটের নিজেদের ও তাদের শরিক বাহিনীকে সুরক্ষার অধিকার রয়েছে এবং সে সব বাহিনীকে রক্ষায় তাদের ক্ষমতা বলে যথাসাধ্য করে যাবে। তিনি বলেন, "আমাদের জোটবাহিনী সিরিয়া ও ইরাকে ইরান সমর্থিত মিলিশিয়া গ্ৰুপের অব্যাহত হুমকির মুখোমুখি। আইসিস বা দায়েশের অব্যাহত পরাজয় নিশ্চিত করার লক্ষ্যে আমাদের শরিকদের সহায়তা, পরামর্শ দান এবং সক্ষম রাখতে জোটের যে মিলিত মিশন রয়েছে, এসব হামলা বিপদজ্জনকভাবে আমাদের বিচ্যুত করতে পারে"।

XS
SM
MD
LG